৫১ দফা

মাননীয় মন্ত্রীর নির্দেশনা: প্রশাসন

৩৬. কাজের মানে গাফিলতি পাওয়া গেলে কর্মকর্তার বিরুদ্ধে বিভাগীয় মামলা রুজুসহ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। ঠিকাদার যদি কাজে কোনো গাফিলতি করে তার বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নিতে হবে।

৩৭. মাঠ পর্যায়ের ডিডিএলজিগণ বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ Random ভিজিট করবেন। কাজে কোনো অনিয়ম পেলে জরুরিভিত্তিতে স্থানীয় সরকার বিভাগে প্রতিবেদন দিতে হবে।

৩৮. উপজেলা পর্যায়ে প্রকৌশলীদের জন্য ইকুপমেন্টসহ মালামাল নেওয়ার জন্য Pick-Up টাইপের গাড়ি ক্রয়ের উদ্যোগ নিতে হবে।

৩৯. তিন বছর পর পর কর্মকর্তাদের বদলির ব্যবস্থা করতে হবে।

৪০. যারা ভাল কাজ করবেন তাদের পুরস্কৃত করার জন্য মানদণ্ড স্থির করে পুরস্কার প্রদান ও খারাপ কাজের সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে।

HTML5 Bootstrap Template by colorlib.com

৪১. ঠিকাদারের সঙ্গে অবৈধ যোগসাজশ থাকলে কাজের মান রক্ষা করা সম্ভব হয় না। এরূপ ক্ষেত্রে পরিদর্শনকালে তা চিহ্নিত করে ব্যবস্থা নিতে হবে।

৪২. স্কিম অনুমোদনের ক্ষেত্রে প্রকল্প পরিচালক কর্তৃক বিলম্ব করা যাবে না।

৪৩. সুপারভাইজার কর্তৃক ফিল্ড ভিজিট বাড়াতে হবে।

৪৪. ঠিকাদারদের বিল যথাসময়ে পরিশোধ করতে হবে।

৪৫. মাঠপর্যায়ের কর্মকর্তাদের কর্মস্থলে অবস্থান করতে হবে।

৪৬. জেলা, উপজেলা, মাঠপর্যায়ে কর্মরত এলজিইডি প্রকৌশলীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করণের লক্ষ্যে আইনগত বিষয়সমূহ বিশ্লেষণপূর্বক দ্রুততম সময়ে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রণালয়কে উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে।

HTML5 Bootstrap Template by colorlib.com